পাত্র দেখাতে নিয়ে কলেজছা’ত্রীর সর্বনাশ করলেন লম্পট ঘট’ক

বিশেষ প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় সোমবার, ২২ নভেম্বর, ২০২১
  • ৩৪ বার পড়া হয়েছে

বগুড়ার শি’বগঞ্জে এক কলেজছা’ত্রীকে পাত্র দেখানোর কথা বলে তার সর্বনাশ করেছেন লম্পট ঘট’ক। ওই ছা’ত্রীকে অ’পহ’রণ করে তিন দিন ধরে ধ’র্ষণ করেছেন শাহিনুর রহমান। পরে থা’না পু’লিশ অ’পহৃত কলেজছা’ত্রীকে উ’দ্ধার এবং ঘট’ককে আ’ট’ক করে। গতকাল শনিবার (১৬ অক্টোবর) রাত ১১টার দিকে ঘট’ককে আ’ট’ক করা হয়। গ্রে’প্তারকৃত শাহিনুর রহমান (৪৩) শি’বগঞ্জ থা’নার রায়নগর ইউনিয়নের করতকোলা গ্রামের মৃ’ত মোবারক প্রাং এর ছে’লে।

জানা গেছে, শাহীনুর ঘট’কালি করে জীবিকা নির্বাহ করেন। একই উপজে’লার মোকামতলা মহিলা কলেজের উচ্চ মাধ্যমিকের এক ছা’ত্রীর বাবার সাথে ঘট’ক শাহিনুরের পরিচয় হয়। সেই সূত্র ধরে ভালো ছে’লের সাথে বিয়ে দেয়ার কথা বলে ওই ছা’ত্রীকে বিভিন্ন স্থানে ঘট’ক শাহিনুর নিয়ে যান।

ওই ছা’ত্রী কলেজে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হন। সন্ধ্যা পার হলেও বাড়ি না ফেরায় তার পরিবারের লোকজন বিভিন্ন স্থানে খোঁজ শুরু করেন। একপর্যায়ে ঘট’কের বাড়িতে গিয়ে ঘট’ককে না পেয়ে তাদের মনে স’ন্দেহ হয়। ঘট’ককে ফোন দিলে ফোন রিসিভ করেননি।

আরও জানা গেছে, কয়েকদিন ধরে ঘট’ক এবং ওই ছা’ত্রীর সন্ধান করতে গিয়ে জানতে পারে শি’বগঞ্জ থা’নার রহবল এলাকায় এক আত্মীয়ের বাড়িতে ঘট’ক তার মে’য়েকে নিয়ে আত্মগো’পন করে আছেন। শনিবার (১৬ আক্টোবর) রাতে ওই ছা’ত্রীর পরিবারের লোকজন সেখানে গেলে ঘট’ক পালানোর চেষ্টা করেন। এসময় স্থানীয় লোকজন তাকে আ’ট’ক করে গণধোলাই দেয়। পরে পু’লিশে খবর দেয়া হলে ঘট’ক শাহিনুরকে গ্রে’প্তার এবং কলেজছা’ত্রীকে উ’দ্ধার করা হয়। ঘট’ক শাহিনুর ভালো ছে’লের সাথে বিয়ের প্রলো’ভন দিয়ে ইতোপূর্বে আরো ৩ জনকে বিয়ে করেন। কিন্তু পরে কেউ তার সংসার করেনি।

শি’বগঞ্জ থা’নার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সিরাজুল ইস’লাম বলেন, অ’পহৃত কলেজছা’ত্রীকে ঘট’ক শাহিনুরের হেফাজত থেকে উ’দ্ধার করা হয়েছে। গ্রে’প্তার হওয়া শাহিনুরের বি’রুদ্ধে কলেজছা’ত্রীর বাবা বাদী হয়ে মা’মলা করেন।

বন্ধুকে সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও যা পড়ে দেখতে পারেন
kidarkar
Copyright © 2021 All rights reserved www.mediamorol.com