মাত্র ৩ দিনের ব্যবধানে ২য় বিয়ের চেষ্টা, বাসর ঘরের পরিবর্তে জায়গা হলো জে’লখা’নায়

বিশেষ প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই, ২০২১
  • ৩ বার পড়া হয়েছে

নোয়াখালী জেলার হাতিয়া উপজেলায় বিয়ে করার ৭২ ঘণ্টার মাথায় ২য় বিয়ে করার চেষ্টার অভিযোগে আব্দুল বাতেন রাজিব (২৭) নামে এক ব্যাংক কর্মকর্তাকে গ্রে;ফ;তা;র করেছে স্থানীয় পুলিশ।এরপরে তাকে আদালতে পাঠালে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয়। আটককৃত আব্দুল বাতেন রাজিব হাতিয়া পৌরসভার চর কৈলাশ গ্রামের আব্দুল হালিম মিয়ার ছেলে। তিনি জে’লার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট পূবালী ব্যাংক শাখায় কর্মরত আছেন।

জানা যায়, গত ২২ জুলাই আব্দুল বাতেন রাজিবের সঙ্গে তমরদ্দি ইউনিয়নের ক্ষিরোদিয়া গ্রামের ডা. আলী আকবর হোসেনের মেয়ে তাছলিমা আকতার শিউলির বিয়ে হয়।

বিয়ের বাসর রাত শেষ করে পরদিন তিনি শ্বশুরবাড়ি থেকে এসে তার মোবাইল বন্ধ রাখে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন। এরপর তিনি ২৪ জুলাই হাতিয়া পৌরসভার ৭নম্বর ওয়ার্ডের শুন্যেরচর গ্রামের মাস্টার আব্দুল আলিম রুবেলের মেয়েকে বিয়ে করতে যান।

বিষয়টি ১ম স্ত্রীর পরিবার জানতে পেরে তার শাশুড়ি হোসনে আরা বেগম বাদী হয়ে প্রতারক জামাতা আব্দুল বাতেন রাজিব ও তার বড় ভাই আজিম উদ্দিনকে আসামি করে মঙ্গলবার সকালে হাতিয়া থানায় মামলা দায়ের করেন।

অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ সকালেই তাকে আটক করে আদালতে প্রেরণ করেন। গ্রে’ফ’তা’র না হলে হতে পারতো তাঁর ২য় বাসর। কিন্তু তাঁর পরিবর্তে যেতে হলো কারাগারে। প্রথম স্ত্রী ভূক্তভোগী তাছলিমা আকতার শিউলি মুন্সিগঞ্জ জেলার গজারিয়া উপজেলায় মৎস্য বিভাগে কর্মরত।

দ্বিতীয় পাত্রীর বাবা মাস্টার আব্দুল আলিম রুবেল বলেন, আব্দুল বাতেন রাজিব জানান- আমার মেয়েকে দেখার জন্য আসলে পুলিশ আমার বাড়ির সামনে থেকে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্ত (ওসি) আবুল খায়ের বলেন, পূবালী ব্যাংক কর্মকর্তা আব্দুল বাতেন রাজিবের বিরুদ্ধে দায়ের করা প্রতারণা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে বিকেলে তাকে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

বন্ধুকে সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও যা পড়ে দেখতে পারেন
kidarkar
Copyright © 2021 All rights reserved www.mediamorol.com