চুরির পর মালিকের কাছ থেকে টাকা আদায়, এরপর করতো বিক্রি

বিশেষ প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় বুধবার, ৭ জুলাই, ২০২১
  • ৩ বার পড়া হয়েছে

বিভিন্ন বাসাবাড়ি থেকে অভিনব কৌশলে ল্যাপটপ ও মোবাইলসহ বিভিন্ন মূল্যবান মালামাল চুরি করতো একটি চোর চক্র। পরে চোরাই মালামালের মালিকের ফোন নম্বর সংগ্রহ করে মালামাল ফেরত দেয়ার কথা বলে বিকাশের মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নিত তারা। এরপর চোরাই মালামাল রাজধানীর মোতালেব প্লাজা ও স্টেডিয়াম মার্কেটে বিক্রি করে দেয় তারা।

 

দীর্ঘ দুই বছর পর ঢাকা মহানগরীর শেরেবাংলা নগর থানাধীন আগারগাঁও এলাকায় অভিনব পন্থায় ল্যাপটপ চুরির ঘটনায় চক্রের প্রধানসহ দুজনকে গ্রেফতার ও চোরাই ল্যাপটপ উদ্ধার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। গ্রেফতারকৃতরা হলো- আব্দুল্লাহ আল মামুন ওরফে নোমান (৪২) ও মাসুদ আলী ওরফে হেলাল (৩৭)।

 

বুধবার (৭ জুলাই) ডিএমপির দারুস সালাম থানা এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে পিবিআইয়ের ঢাকা মেট্রোর (উত্তর) একটি দল। পিবিআই ঢাকা মেট্রোর (উত্তর) বিশেষ পুলিশ সুপার মো. জাহাঙ্গীর আলম জানান, জনৈক তানিম হোসেন ২০১৯ সালের ১০ অক্টোবর শেরেবাংলা নগর থানায় একটি মামলা করেন। তিনি মামলায় উল্লেখ করেন, ওইদিন সকাল সাড়ে ৮টা থেকে বিকেল

 

সাড়ে ৫টার মধ্যে তালা ভেঙে অজ্ঞাতনামারা তার আগারগাঁও বাসা নং-১০৫/সি, ফ্ল্যাট নং-৬ বি থেকে একটি ল্যাপটপ ব্যাগসহ চুরি করে নিয়ে যায়।

ওই ঘটনার পর চোর চক্রের সদস্যরা বিভিন্ন সময়ে তার মোবাইলে ফোন করে চোরাই ল্যাপটপ ফেরত দেয়ার শর্তে বিকাশের মাধ্যমে টাকা দাবি করে। আদালতের নির্দেশে মামলাটির তদন্তভার পিবিআই গ্রহণ করে।

তিনি বলেন, ‘পিবিআই ঢাকা মেট্রোর (উত্তর) একটি বিশেষ টিম ঘটনার সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত আব্দুল্লাহ আল মামুন ওরফে নোমান ও মাসুদ আলী ওরফে হেলালকে দারুস সালাম থানা এলাকা থেকে গ্রেফতার করে।’

গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ ও তদন্তে পাওয়া তথ্যের বরাতে বিশেষ পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর বলেন, ‘গ্রেফতার নোমান একটি সংঘবদ্ধ চোর চক্রের প্রধান। সে কম বয়সী ছেলেদের টার্গেট করে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে দলে নিয়ে আসে এবং

তাদেরকে দিয়ে বিভিন্ন বাসা বাড়ি থেকে অভিনব কৌশলে ল্যাপটপ ও মোবাইলসহ বিভিন্ন মূল্যবান মালামাল চুরি করায়। পরে চোরাই মালামালের মালিকের ফোন নম্বর সংগ্রহ করে মালামাল ফেরত দেয়ার কথা বলে বিকাশের মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নেয়। এরপর চোরাই মালামাল ঢাকা মহানগরীর মোতালেব প্লাজা ও স্টেডিয়াম মার্কেটে বিক্রি করে দেয়।’

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণসহ চক্রের সঙ্গে জড়িত অন্য সদস্যদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি।

 

বন্ধুকে সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও যা পড়ে দেখতে পারেন
kidarkar
Copyright © 2021 All rights reserved www.mediamorol.com