শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার দাবি ডা. জাফরুল্লাহ’র

বিশেষ প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় সোমবার, ৩১ মে, ২০২১
  • ৭ বার পড়া হয়েছে

ঢাকা: সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার জানিয়েছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি এবং প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। সোমবার (৩১ মে) দুপুরে শাহাবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনে ‘গ্রেফতার ৫৪ জন ছাত্রের অবিলম্বে মুক্তির দাবিতে-উদ্বিগ্ন অভিবাভক এবং নাগরিকের পক্ষ থেকে অনুষ্ঠিত সমাবেশ তিনি এ দাবি করেন।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ছাত্ররা দিনের আলো সবচেয়ে আগে দেখতে পান। তাই যখন নরেন্দ্র মোদী এ দেশে এসেছিল ছাত্ররা তার প্রতিবাদ করেছিল। তারা সঠিক কাজটিই করেছে। তাদের দায়িত্ব পালন করেছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী বুঝতে পারছেন না তিনি কি ভুল করছেন। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, জাতিকে একত্রিতভাবে উন্নয়নের পথে আসতে। প্রধানমন্ত্রী আপনাকে আমি কতবার বলেছি সবাইকে একসঙ্গে ডাকেন। আপনি ডাকেননি, কারণ আপনি আমাদেরকে ভয় পান। আপনি আমাদের না, সত্যকে ভয় পান। আহ্বান যেহেতু করেছেন, এবার সেটা কার্যকর করে দেখান। সকল বিরোধী দলকে ডাকেন।

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, মঙ্গলবার থেকে সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দিন। একটা জাতিকে ধ্বং’স করতে হলে তার শিক্ষাকে ধ্বং’স করতে হয়। প্রয়োজন হলে স্কুল-কলেজে ২-৩ শিফ্ট চালু করতে হবে। এটা না করলে জাতি ধ্বং’স হয়ে যাবে, জাতি সিকিমে পরিণত হবে। তার জন্য দায়ী হবেন আপনি।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা বলেন, ঐক্যের শক্তির প্রমাণ হচ্ছে রোজিনা ইসলাম। আমাদের দেশের প্রতিটা সংগঠনকে দ্বিধা বিভক্ত করা হয়েছে, আওয়ামীপন্থী, বিএনপিপন্থী না হয় করিম এবং রহিমপন্থী। রোজিনা ইসলামের ঘটনায় সাংবাদিকরা এই প্রথম দেখিয়েছে তারা সবাই একপন্থী। চারিদিকে যখন একত্রে আওয়াজ উঠেছে, রোজিনা ইসলামকে তারা ৭ দিনও আটকে রাখতে পারেনি।

সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, কল্যাণ পাটির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম, গণফোরামের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ড. রেজা কিবরিয়া, রাষ্ট্র চিন্তার সদস্য রাহুল রাহা, গণফোরামের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ, মুক্তিযোদ্ধা সাদেক খান, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, লেবার পার্টির

চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজার রহমান ইরান, ভাসানী অনুসারী পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য মুক্তিযোদ্ধা নঈম জাহাঙ্গীর, মুক্তিযোদ্ধা ইসতিয়াক আজিজ উলফাত, ডাকসুর ভিপি নূরল হক নূর প্রমুখ।

এছাড়াও সমাবেশে বক্তব্য দেন গ্রেফতারকৃত ছাত্রদের নেতা ও অভিভাবকরা। সমাবেশ পরিচালনা করেন ভাসানী অনুসারী পরিষদের কেন্দ্রীয় সদস্য জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু। সমাবেশ শেষে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীসহ নেতারা প্রধান বিচারপতির সঙ্গে ছাত্রদের মুক্তির দাবিতে দেখা করার উদ্দেশ্যে রওনা হন।

বন্ধুকে সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও যা পড়ে দেখতে পারেন
kidarkar
Copyright © 2021 All rights reserved www.mediamorol.com