বঙ্গোপসাগরে ২টি নি’ম্নচা’পসহ ঘূ’র্ণিঝ’ড়ের আশ’ঙ্কা

বিশেষ প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় বুধবার, ৩১ মার্চ, ২০২১
  • ৪ বার পড়া হয়েছে

এপ্রিলে বঙ্গোপসাগরে এক থেকে দুটি নিম্ন চা’প হতে পারে। এর মধ্যে একটি ঘূ’র্ণিঝ’ড়ে রূপ নিতে পারে বলে জা’নিয়েছে অবহাওয়া অধিদফতর। এছাড়া দেশের উত্তর থেকে মধ্যাঞ্চল পর্যন্ত ২-৩ দিন ব’জ্রসহ মাঝারি অথবা তীব্র কালবৈশাখী অথবা ব’জ্র-ঝ’ড় ও দেশের অন্যস্থানে চার থেকে পাঁচ দিন হালকা বা মাঝারি কালবৈশাখী/ব’জ্রঝ’ড় হতে পারে।

এপ্রিল মাসে দেশে স্বা’ভাবিক বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। দেশের উত্তর ও উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে তীব্র তাপ প্রবাহ (১৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস) এবং অন্যস্থানে ১-২টি মৃদু অথবা মাঝারি তাপ প্রবাহ বয়ে যেতে পারে। আবহাওয়া অধিদফতরের দেয়া তিনমাস মেয়াদী (মা’র্চ-মে) এক বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা বলা হয়েছে।

আরও পড়ুন: ডমিঙ্গোর কাছে এটি অ’বাক করা ম্যাচ আন্তর্জাতিক কোনো ম্যাচে এমন ঘ’টনা কত দিন পর হলো, তা নিয়ে গবেষণা হতে পারে। বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর কাছে এই ম্যাচটি অ’বাক করার মতোই। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের কাছে ২৮ রানে হেরেছে বাংলাদেশ, বৃষ্টি আ’ইনে।

কিন্তু জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে বাংলাদেশ সঠিক জানতেই পারেনি তাদের কত রান ক’রতে হবে। এমন অদ্ভুতুড়ে কাণ্ডে তীব্র হ’তাশা প্র’কাশ ক’রেছেন বাংলাদেশের কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ১৭.৫ ওভারে ৫ উইকে’টে

১৭৩ রান তোলে নিউজিল্যান্ড। এরপর নামে দ্বিতীয় দ’ফার বৃষ্টি। পরে কিউইরা আর ব্যাটিংয়ে নামেনি। বাংলাদেশ ১৬ ওভারে ১৪৮ রানের লক্ষ্যে নামা’র পর আচ’মকা ব’ন্ধ হয়ে যায় খেলা।

ম্যাচ রেফারির কক্ষে তখন বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ড উভ’য় দলের ম্যানেজার। কিছুক্ষণ আলাপ’চারিতার পর লক্ষ্যটা বেড়ে হয় ১৭০। ইনিংসের মাঝ পথে সেটিও বদলে যায়, বলা হয় ক’রতে হবে ১৭১ রান। ম্যাচের পর সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ কোচ বলেন, ‘আমি এমন কোনো ম্যাচে আগে কখনো যুক্ত থাকিনি, যেখানে ব্যাটাররা নেমে গিয়েছে, অথচ তারা জানে না ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতিতে লক্ষ্য কত।

কেউই জানত না ৫ ওভার শেষে আমাদের কত দরকার কিংবা ৬ ওভারে শেষে কত দরকার (বৃষ্টিতে আবার ৫/৬ ওভারে খেলা ব’ন্ধ হলে)। আমি এমন কোনো ম্যাচের অন্তর্ভুক্ত ছিলাম না যেখানে কেউ জানে না ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতিতে লক্ষ্য কত। আমা’র মনে হয়, বিষয়টির সুরাহা হওয়া না পর্যন্ত খেলা শুরু করা উচিত হয়নি।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের কাছে যে ব্যাখ্যা দেয়া হয়েছে, তা হলো, সাধারণত ইনিংস শুরুর এক-দুই বলের মধ্যে তারা লক্ষ্য নির্ধারণ করে ফে’লে । কিন্তু তা ঘ’টেনি। দেখু’ন, এসব ক্ষেত্রে অজুহাত দেয়ার কিছু নেই। কিন্তু বিষয়টা আমাদের জন্য খুবই হ’তাশাজনক।

তারা হিসাবনিকাশ শেষ হওয়ার জন্য অপেক্ষা করছিল। কিন্তু বাংলাদেশের ব্যাটিং শুরু তারা বিলম্বিত ক’রতে পারেনি। ওভার কাটাসহ নানা কারণ জড়িত ছিল। তবে এটা খুবই হ’তাশাজনক।’

বন্ধুকে সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও যা পড়ে দেখতে পারেন
kidarkar
Copyright © 2021 All rights reserved www.mediamorol.com