kidarkar

শেয়ারবাজারে আবার ধ’স

বাংলাদেশ

নাহিদ হাসান | ২৪ মার্চ ২০২১, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ০৩:৫৮ অপরাহ্ন

দুদিন কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী থাকার পর বুধবার (২৪ মার্চ) দেশের শেয়ারবাজারে আবার ধ’সের ঘটনা ঘটেছে। এর মাধ্যমে শেষ পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে তিনদিন ধ’সের ঘটনা ঘটল।এদিন প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সবকটি মূল্য সূচকের বড় পতন হয়েছে। সেই সঙ্গে পতনের তালিকায় নাম লিখিয়েছে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠান। পাশাপাশি কমেছে লেনদেনের পরিমাণও।

দিনের লেনদেনের শুরুতেই শেয়ারবাজারে পতনের আভাস পাওয়া যায়। লেনদেনের সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে পতনের মাত্রা। ব্যাংক, বীমার পাশাপাশি সবকটি খাতে একের পর এক প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমতে থাকে। ফলে ধ’সে পরিণত হয় শেয়ারবাজার। দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইতে মাত্র ২৩টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ২৩৪টির। আর ৯৬টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের দরপতন হওয়ায় দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ৮৩ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ৩৩০ পয়েন্টে নেমে গেছে। প্রধান মূল্য সূচকের পাশাপাশি পতন হয়েছে বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচকের। আগের দিনের তুলনায় এই সূচকটি ৩৮ পয়েন্ট কমে ২ হাজার ২৪ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসইর শরিয়াহ্ সূচক ১৬ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ২২১ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

সূচকের বড় পতনের পাশাপাশি ডিএসইতে লেনদেনের পরিমাণও কমেছে। দিনভর বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৫৮০ কোটি ৩৯ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৬৩১ কোটি ৬ টাকা। সে হিসাবে লেনদেন কমেছে ৫০ কোটি ৬৭ লাখ টাকা।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকোর শেয়ার। কোম্পানিটির ৭৪ কোটি ১১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা বেক্সিমকো ফার্মার লেনদেন হয়েছে ৪৫ কোটি ৯৪ লাখ টাকার শেয়ার। ৩০ কোটি ১২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে রবি।

এছাড়া ডিএসইতে লেনদেনের দিক থেকে শীর্ষ দশ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, এনআরবিসি ব্যাংক, জিবিবি পাওয়ার, সামিট পাওয়ার, রহিমা ফুড, প্রিমিয়ার ব্যাংক এবং স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য সূচক সিএএসপিআই কমেছে ২৪৭ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১৭ কোটি ৭৩ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেয়া ২২৩টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৩৩টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৪৯টির এবং ৪১টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • *
  • এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আরও খবর

    kidarkar