kidarkar

ইমামের কাছে আরবি পড়তে গিয়ে ধ র্ষ ণের শিকার ছাত্রী

বাংলাদেশ

হাসান রাফি | ০৬ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ০৬:০৩ অপরাহ্ন

পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রী ম’সজিদে আরবি পড়তে গিয়ে ই’মাম কর্তৃক ধ’র্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অ’ভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ম’সজিদের ই’মামকে আ’ট’ক করে পু’লিশে দিয়েছে এলাকাবাসী। ঘটনাটি মাদারীপুর সদর উপজে’লার পেয়ারপুর ইউনিয়নের কুমড়াখালি এলাকায় ঘটেছে। আ’ট’ককৃত ই’মামের নাম মেহেদী হাসান মোল্লা। দীর্ঘ ১২ বছর ধরে এলাকার জবান খাঁন জামে ম’সজিদে ই’মাম হিসেবে চাকরি করছেন।

জানা যায়, মেয়েটি এলাকার একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী। প্রতিদিন সকালে এলাকার অন্য শি’শুদের সঙ্গে সে গ্রামের ম’সজিদে ই’মামের কাছে আরবি পড়তে যেত। গত অক্টোবর মাসের ১২ তারিখ সকালে অন্য শি’শুদের সঙ্গে মেয়েটিও পড়তে যায়। পড়াশেষে সবাইকে ছুটি দিলেও মেয়েটিকে তার (ই’মামের) থাকার কক্ষ ঝাড়ু দেওয়ার কথা বলে ই’মাম মেহেদী হাসান তার কক্ষে নিয়ে যায়। পরে কক্ষের দরজা বন্ধ করে ছাত্রীটিকে ধ’র্ষণ করে। এরপর গত ১৫ অক্টোবর একই ভাবে তাকে আবার ধ’র্ষণ করে।

মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) মেয়েটি স্কুলে গিয়ে হঠাৎ অ’সুস্থ হয়ে পড়ে। বাড়িতে এসে রাতে মেয়েটি তার নানির কাছে সব খুলে বলে। পরে এলাকার লোকজন ই’মাম মেহেদি হাসান মোল্লাকে আ’ট’ক করে। চরমুগরিয়া পু’লিশ ফাঁড়ির সহকারী উপ পরিদর্শক আবুল কালাম বলেন, ‘রাত ৯ টার দিকে এলাকাবাসী আমাদের ঘটনাটি জানালে আম’রা সেখান থেকে মেহেদী হাসান নামে একজনকে থানায় নিয়ে আসি।’ মাদারীপুর সদর থানার ওসি সওগাতুল আলম জানান, ‘মেয়েটির পরিবারের পক্ষ থেকে অ’ভিযোগ নিয়ে মা’মলা করা হয়েছে। মা’মলার আ’সামিকে গ্রে’ফতার দেখানো হয়েছে।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • *
  • এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আরও খবর

    kidarkar