kidarkar

বরিশালে মু’সলিম হওয়ায় ডাক্তার ইন্দ্রানীকে ব’ন্দী করে নি’র্যাতনের অ’ভিযোগ

বাংলাদেশ

হাসান রাফি | ০৬ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ০৫:৫২ অপরাহ্ন

হিন্দু ধর্মাবলম্বী ডাক্তার ইন্দ্রানী বণিক (জান্নাতুল রহমান) পড়াশুনা ও চাকুরী জীবনে নানান ধর্মের মানুষের সাথে চলাফেরার মাধ্যমে সর্বশেষ বুঝতে পারলেন ইসলাম ধর্মই একমাত্র শান্তির ধর্ম। ইসলাম ধর্মের নিয়ম-কানুন, রীতি-নীতি, আচার-আচারণ দেখে হিন্দু ধর্ম পরিত্যাগ করে একমাত্র শান্তির ধর্ম ইসলাম চলতি বছরের আগস্ট মাসের ১৮ তারিখ গ্রহণ করেন। এতেই পরিবারের কাছে কাল হয়ে ধারায় ডাক্তার ইন্দ্রানী বণিক (জান্নাতুল রহমান)’র। জান্নাতুল রহমানের উপর শুরু হয় বিভিন্ন ভাবে মানষিক নি’র্যাতন।

জানা গেছে, ঢাকার প্রথম শ্রেণীর ম্যাজিষ্ট্রেট/নোটারী পাবলিক আ’দালতের মাধ্যমে হিন্দু ধর্ম পরিত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। হলফনামায় ডাক্তার ইন্দ্রানী বণিক (জান্নাতুল রহমান) উল্লেখ করেন, তিনি একজন প্রাপ্ত বয়স্কা মহিলা বাংলাদেশের স্থায়ী বাসিন্দা ও নাগরিক। ভালমন্দ বুঝতে ও যে কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করিতে সম্পূর্ণ রুপে সক্ষম।

বাংলাদেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী স্বাধীনভাবে যে কোন সিদ্ধান্ত নেয়ার অধিকার তার আছে। দীর্ঘদিন যাবৎ পার্শ্ববর্তী ইসলাম ধর্মাবলম্বী মুসলিম ভাইদের সাথে চলাফেরার মাধ্যমে ও ইসলাম ধর্মের নিয়ম-কানুন, রীতি-নীতি, আচার-আচারণে বুঝতে পারেন, ইসলাম ধর্মই একমাত্র শান্তির ধর্ম। তাই আগস্ট মাসের ১৮ তারিখ একজন মাওলানার মাধ্যমে হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্মের কালেমা পাঠ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। তিনি আরো উল্লেখ করেন, ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করিয়াছি এবং স্বীকার করিয়াছি আল্লাহ এক তাহার কোন শরীক নাই। ইসলাম একমাত্র শান্তির ধর্ম।

সূত্রে জানা যায়, ইন্দ্রানী বণিক (জান্নাতুল রহমান), পিতা: মৃ’ত: ডাক্তার বিকাশ দত্ত বণিক। পেশায় একজন ডাক্তার। গ্রামের বাড়ী মৈতেরী, শ্রেনাথ চ্যাটার্জী লেন, বগুড়া রোড় বরিশাল। বর্তমান ঠিকানা উত্তরা, বিমান বন্দর ঢাকা। ইন্দ্রানী বণিক (জান্নাতুল রহমান) এর পরিচয় যশোরের ছেলে ঢাকার বাসিন্দা ও একটি প্রথম শ্রেণীর বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের জিএম আশিকুর রহমানের সাথে। এক পর্যায় একে অপরকে ভালোবাসে। দীর্ঘদিনের ভালবাসার টানে নিজ হিন্দু ধর্ম পরিত্যাগ করে আগস্ট মাসের ১৮ তারিখ মুসলিম হয়ে নিজের নাম পরিবর্তন করে নাম রাখেন জান্নাতুল রহমান। পাশাপাশি একই দিনে আশিকুর রহমানের সঙ্গে বিয়ে আবাদ্ধ হন জান্নাতুল রহমান। সংসার বাঁধে দুই জনে।

সংসার জীবন ভালোই চলছিল আশিকুর ও জান্নাতুল রহমানের। বি’ষয়টি মেয়ের পরিবার জানতে পেরে, মেয়ের মা ও মামা কৌশলে অক্টোবর মাসের ১২ তারিখ মামা সুবাস বণিকের গ্রামের বাড়ী বরিশাল ঝালকাঠীতে এনে বন্দী করে রাখেন। এদিকে স্বামী আশিকুর রহমান স্ত্রীর মোবাইল বন্ধ পেয়ে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজা-খুঁজি করেন পরে জান্নাতুল রহমানের মায়ের ফোনে কথা বলে নিশ্চিত হন তার স্ত্রী অথাৎ জান্নাতুল রহমানের মা মিনতি বণিক মামা বাড়ী নিয়ে আ’টক করে রেখেছেন।

পরের দিন অক্টোবর মাসের ১৩ তারিখ ঢাকার উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি সাধারণ জি’ডি করেন। আশিকুর রহমানের দাবী তার স্ত্রীকে নি’র্যাতন করে মে’রে ফেলবে অথবা ভারতে পাঠিয়ে দেবে মামা সুবাস বণিক ও তার পরিবার। এমন অভিযোগ এনে আশিকুর ইতিপূর্বে অথাৎ গত মাসের ৩০ তারিখ ঝালকাঠী বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যা’জিস্ট্রেট আ’দালতে স্ত্রী উদ্বারের জন্য একটি মা’মলা দা’য়ের করেছেন। বিচারক মা’মলা আমলে নিয়ে বিবা’দী ইন্দ্রানী বণিক (জান্নাতুল রহমান), মামা ঝালকাঠীর ব্যবসায়ী সুবাস বনিক, সুবাস বণিকের ছেলে সুনিল বণিক ও ইন্দ্রানী বণিক (জান্নাতুল রহমান) এর মা মিনতি বণিককে আগামী ডিসেম্বর মাসের ৪ তারিখ স্ব-শরীরে হাজির হওয়ার নির্দেশ প্রদান করেন বিচারক।

সূত্র : সময়ের বার্তা

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • *
  • এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আরও খবর

    kidarkar