kidarkar

ইজরায়েলে মাটির নীচে সোনার সুড়ঙ্গ ও সেনাদের গোপন সদর দফতর

বিশ্ব

মেহেদি হাসান | ০২ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ০৬:০০ অপরাহ্ন

মাটির তলায় লুকিয়ে রাখা ৮০০ বছরের পুরানো সোনার সুড়ঙ্গের খোঁজ পেলেন বিজ্ঞানীরা। খোঁজ মিলল সেই সময়ের সেনাদের গোপন সদর দফতরেরও। এখন শুধু খোঁড়াখুঁড়ি করে সেই সম্পত্তি তুলে আনার অপেক্ষা।

উন্নত প্রযুক্তির লেসার প্রযুক্তি ব্যবহার করে এই সুড়ঙ্গের খোঁজ পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। ন্যাশনাল জিযোগ্রাফিক চ্যানেলের বিজ্ঞানী লিন এবং তার দল সম্প্রতি এই খোঁজ পেয়েছেন। চ্যানেলে তা সম্প্রচারও করা হয়েছে।

লিন জানিয়েছেন, একাদশ শতকে ধর্মযু’দ্ধের সময় ইজরায়েলের শহর একরির নীচে খ্রিস্টান যো’দ্ধারা সুড়ঙ্গ তৈরি করেছিলেন। ধর্মযু’দ্ধ ছিল ইজরায়েলকে মুসলিম আ’ধিপ’ত্য থেকে মুক্ত করার, সেখানে খ্রিস্টধর্মের সূচনা করার। ধর্মযু’দ্ধের সময় ইজরায়েলের ওই শহরই ছিল খ্রিস্টসেনাদের সদর দফতর।

সদর দফতর যাতে সহজে খুঁজে না পাওয়া যায়, তার জন্য একরি শহরের মাটির অনেকটা নীচে ওই সুড়ঙ্গ তৈরি করা হয়েছিল। গোপন সুড়ঙ্গ দিয়ে সদর দফতরে পৌঁছতেন সেনারা। এই সুড়ঙ্গ দিয়েই তারা প্রয়োজনীয় সামগ্রী এবং সঙ্গে প্রচুর সোনা নিয়ে যেতেন।

এই প্রথম ৮০০ বছরের পুরানো সেই সুড়ঙ্গের খোঁজ পেলেন বিজ্ঞানী লিন। তবে এই সুড়ঙ্গ মাটির ঠিক কতটা নীচে রয়েছে এবং তার বিস্তৃতি কতটা জায়গা জুড়ে রয়েছে তা জানার চেষ্টা এখনও চালিয়ে যাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা।

তবে অনেক ইতিহাসবিদ মনে করেন, এই গোপন সুড়ঙ্গ সোনার মতো মূল্যবান সম্পদ নিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি সেনাদের লুকিয়ে থাকা এবং বি’প’দে পড়লে অন্যত্র পালাবার রাস্তা হিসাবেও ব্যবহার করা হত। এতদিন সেই সুড়ঙ্গ এবং সদর দফতরের কথা জানা থাকলেও, তার প্রকৃত অবস্থান জানা ছিল না।

ইজরায়েলের একরি শহরে মাটির উপরে থাকা খ্রিস্টান যো’দ্ধাদের সদর দফতরের ধ্বং’স’স্তূপ এখনও রয়েছে। বিজ্ঞানীদের অনুমান, আরও ভাল করে খোঁড়াখুড়ি করলে সেনাদের লুকিয়ে রাখা অনেক সোনা উদ্ধার করা যাবে মাটির নীচের ওই সদর দফতর এবং সুড়ঙ্গ থেকে।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • *
  • এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আরও খবর

    kidarkar