kidarkar

নববধূর হাত-পায়ের রগ কাটলেন স্বামী

বাংলাদেশ

রানা মিয়া | ২৮ অক্টোবর ২০১৯, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:০৮ অপরাহ্ন

বিয়ের মাত্র ৩৬ দিনের মাথায় যৌতুকের দাবিতে রংপুরের পীরগাছায় এক নববধূকে নির্যাতন করে তার হাত-পায়ের রগ কেটে দিয়েছে স্বামী ও স্বজনরা। এরপর হাতুড়ে ডাক্তার দিয়ে সেলাই করে একদিন বাড়িতেই ওই নববধূকে আটকে রাখা হয়।
গতকাল রোববার সকালে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

ভুক্তভোগী গৃহবধূ শিউলি বেগম উপজেলার ছাওলা ইউনিয়নের রতনপুর গ্রামের শাহজাদা মিয়ার স্ত্রী এবং পাশের তাম্বুলপুর ইউনিয়নের ঘগোয়া সরদারপাড়া গ্রামের ফজলুল হকের মেয়ে। এ ঘটনায় পীরগাছা থানায় একটি মামলা করা হয়েছে। এরপর থেকেই স্বামী শাহজাদা মিয়া ও তার পরিবারের সদস্যরা পলাতক রয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ২০ সেপ্টেম্বর রতনপুর গ্রামের মুনছুর আলীর ছেলে শাহজাদা মিয়ার সঙ্গে শিউলি বেগমের বিয়ে হয়। এ সময় শিউলি বেগমের বাবা নগদ ৮৫ হাজার টাকা ও স্বর্ণালংকার মেয়ে জামাইকে যৌতুক দেন। কিন্তু বিয়ের মেহেদীর রং মুছতে না মুছতেই শাহজাদা মিয়া আরো দুই লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন এবং স্ত্রীকে নির্যাতন করতে থাকেন। গত শনিবার এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়া হলে শাহজাদা মিয়া ও তার পরিবারের সদস্যরা মিলে শিউলি বেগমকে নির্যাতন শুরু করে। একপর্যায়ে তার হাত-পায়ের রগ কেটে দেয় তারা।

পীরগাছা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. আল হাদী মোহাম্মদ জানান, মেয়েটির অবস্থা আশঙ্কাজনক।

পীরগাছা থানার ওসি রেজাউল করিম জানান, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। পুলিশ আসামিদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চালাচ্ছে।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • *
  • এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আরও খবর

    kidarkar