kidarkar

‘মার্ডার করিনি, চুরিও না-কাজ করে খেতে এসেছি’

বিশ্ব

রানা মিয়া | ২৭ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার | সর্বশেষ আপডেট: ০৭:৪৫ অপরাহ্ন

‘অবৈধ বাংলাদেশি’ সন্দেহে ভারতের কর্নাটক রাজ্যের পুলিশ রাজধানী ব্যাঙ্গালোর থেকে অন্তত ৬০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। যাদের মধ্যে অর্ধেকেরও বেশি নারী ও শিশু। খবর বিবিসি বাংলার।

শনিবার (২৬ অক্টোবর) দিনভর শহরের বিভিন্ন বস্তিতে অভিযান চালিয়ে এই বাংলাদেশিদের আটক করা হয়। যাদের কাছে ভারতে বৈধভাবে থাকা বা কাজ করার মতো প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ছিল না বলে পুলিশ জানিয়েছে।

এদিকে, রাজ্যটির বিজেপি সরকার ইতিমধ্যেই ঘোষণা করেছে যে, অবৈধ বিদেশিদের শনাক্ত করতে তারা কর্নাটকেও আসামের ধাঁচে এনআরসি বা জাতীয় নাগরিকপঞ্জী তৈরি করতে চায়। এমনকী সেখানে একটি ‘ফরেনার্স ডিটেনশন সেন্টার’ বা বন্দী-শিবির তৈরির কাজও শেষ পর্যায়ে। যেখানে অবৈধ বিদেশিদের আটক রাখা হবে বলে জানানো হয়েছে।

বস্তুত, আসামের পর ভারতের যে সব রাজ্যে ইদানীং কথিত অবৈধ বাংলাদেশি তাড়ানো বা এনআরসি অভিযান চালু করার হিড়িক পড়েছে, তার অন্যতম হল দক্ষিণ ভারতের কর্নাটক।

রাজ্যের বিজেপি সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বাসবরাজা বোম্মাই এ সপ্তাহেই সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন যে, বিদেশি নাগরিকদের মধ্যে যারা সেখানে বেআইনিভাবে থাকছেন তাদের ডেটাবেস তৈরির কাজ শুরু হয়ে গেছে।

বাসবরাজা বোম্মাই বলেন, “অভিবাসীদের মধ্যে কারা এখানে বৈধভাবে বা পাসপোর্ট-ভিসা নিয়ে আছেন আর কাদের সেসব নেই, বেআইনিভাবে এখানে আছেন, আমরা সেই তথ্য সংগ্রহ করছি।”

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, “সীমান্ত পেরিয়ে যারা দক্ষিণ ভারতে এসেছেন, তাদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি লোক কিন্তু ঢুকেছে কর্নাটকেই, ব্যাঙ্গালোর ও অন্যত্র তারা থাকছেন।”

“একে তো তাদের কাগজপত্র নেই, আরও উদ্বেগের বিষয় হল- তারা নানা অপরাধমূলক কাজে জড়িয়ে পড়ছেন। কর্নাটকের স্থানীয় মানুষের জীবন শান্তিতে রাখার জন্য যেটা করা দরকার, এখানে আমরা সেটাই করতে চাই”, যোগ করেন তিনি।

সরকারের এই ঘোষণার চারদিনের মাথাতেই শনিবার ব্যাঙ্গালোরের মারাঠাহাল্লি, বেলান্ডার ও রামমূর্তি নগর – এই তিনটি এলাকার বস্তিগুলোয় অভিযান চালিয়ে পুলিশ অন্তত ৬০ জনকে গ্রেফতার করে। যাদের মধ্যে ২৯ জন পুরুষ, ২২ জন নারী এবং বাকি ৯ জন শিশু।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • *
  • এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আরও খবর

    kidarkar