kidarkar

ফুটপাতে জুতা সেলাই করেও চার মেয়েকে উচ্চ শিক্ষিত করছেন বাবা

অদ্ভুত খবর

হাসান রাফি | ২৫ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৪৯ পূর্বাহ্ন

নওগাঁ সড়কের মুক্তির মোড়ের পাশে ফুটপাতে বসে জুতা সেলাই করেন পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি গোপাল দাস। এরই মাধ্যমে মে’য়েদের পড়াশোনার পাশাপাশি সংসার চালান তিনি। গোপাল দাসের চার মে’য়ে। তারা সবাই বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে পড়াশোনা করছেন। এত প্রতিকূলতার মধ্যেও মে’য়েদের পড়াশোনার মাধ্যমে আত্মনির্ভরশীল করে তোলার স্বপ্ন দেখেন বাবা গোপাল দাস।

এদিকে তার চার মে’য়েও ভীষণ আত্মপ্রত্যয়ী। তারাও লেখাপড়া শিখে নিজেদের যোগ্যতার প্রমাণ দিয়ে সরকারি চাকরি নিতে চায়। তাদের সবার কণ্ঠেও শোনা গেছে আত্মবিশ্বা’স।

জানা গেছে, গোপাল দাসের এক মে’য়ে পড়াশোনা করছে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ এর এ এম আই ই কোর্সে। অন্য মে’য়েরা কলেজ ও মাধ্যমিকে পড়াশোনা করছেন। এর মধ্যে দুই মে’য়ের বিয়ে হয়নি।

কা’ন্নাজ’ড়িত কণ্ঠে গোপাল তার দৈন্যতার কথা জানাতে গিয়ে বলেন, এক সময় সড়কের পাশে কুঁড়ে ঘরের দোকান ছিল। এক সময় সেটি ভেঙে দেয়া হয়। এরপরই সংসারে দৈন্যতা নেমে আসে।

তিনি আরো জানান, ফুটপাতে বসে জুতা সেলাই করায় কমে গেছে রোজগার। বয়স বেড়ে গেছে। প্রায় সময়ই অ’সুস্থ থাকতে হয়। এতে রোজগার করতেও খুব ক’ষ্ট হয়।

এদিকে গোপালের এ এম আই’তে পড়াশোনা করা মে’য়ে জানান, পড়াশোনা শেষ করে তার একটাই স্বপ্ন, সে ভালো পু’লিশ অফিসার হতে চায়। অন্যথায় সে বিমানবালা বা কেবিন ক্রু হতে চায়।

তার কলেজে পড়ুয়া অন্য মে’য়ে জানান, আমা’র স্বপ্ন, আমি ডিগ্রি পাস করে ভালো একটা সরকারি চাকরি করব। অ’পর এক মে’য়ে জানান, আমা’রা সব বোনেরাই একটু হলেও কিছু করতে চাই।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • *
  • এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আরও খবর

    kidarkar