kidarkar

যেসব দামি জিনিস কিনে বিশ্বকে অবাক করেছেন সৌদি যুবরাজ

বিশ্ব

মেহেদি হাসান | ২৪ অক্টোবর ২০১৯, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ০৯:০১ অপরাহ্ন

বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ফুটবল ক্লাবটিতে সম্ভবত আরও অর্থের জোগান হতে যাচ্ছে। সৌদি আরবের সিংহাসনের উত্তরসূরি মোহাম্মদ বিন সালমান ৩০০ কোটি ডলারের বিনিময়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের নিয়ন্ত্রণ নিতে যাচ্ছেন।

ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড দ্য সানের খবরে বলা হয়েছে, এই যুবরাজের নিয়ন্ত্রণের বিলাসী ও দামি বস্তু একেবারে কম না।

বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদের এই ছেলে, তার পরিবার এক লাখ কোটি ডলারের সম্পদের মালিক হবেন। কাজেই নিজের এই বিপুল অর্থ উড়াতে তার অতৃ’প্ত ক্ষু’ধা রয়েছে।অতীতে অসাধারণ একটি ইয়ট, একটি ফরাসি বাড়ি ও বিরল শিল্পকর্ম কিনতে লাখো ডলার খরচ করেছেন তিনি।

নিজের মর্যাদা অনুসারে তার বন্ধুত্বও রয়েছে উচ্চপর্যায়ে। হোয়াইট হাউসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে দেখা করেছেন তিনি। ট্রাম্প তাকে বন্ধু বলে সম্বোধন করেছেন।

সেই ২০১৫ সালের কথা। তখন এক অজ্ঞা’ত ক্রেতা ২৩ কোটি ডলার খরচ করে একটি শ্যাটো বা আবাসিক বাড়ি কিনে বিশ্বকে অবাক করে দিয়েছেন। ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের পশ্চিমে ওই বাড়িটির অবস্থান।

তখন বিশ্বের সবচেয়ে বেশি দামে বিক্রীত কোনো বাড়ি ছিল এটিই। বছর দুয়েক পর খবরে বলা হয়েছে- ৩৪ বছর বয়সী মোহাম্মদ বিন সালমানই কিনে নিয়েছিলেন ওই বাড়ি।

ফ্রান্স সফরে গিয়ে ৫০ হাজার বর্গফুটের শ্যাটো লুইস এক্সআইভির প্রেমে পড়ে যান। বাড়িটিতে তিনটি শয়নকক্ষ, একটি ইনডোর ও আউটডোর পুল, একটি লাইব্রেরি ও অ্যাকুরিয়ামে ঢাকা একটি গড়খাই রয়েছে।

অর্থ উড়াতে মোহাম্মদ বিন সালমানের জুড়ি নেই। একই বছর রুশ ভদ’কা ধনকুবের ইউরি শেলফারের কাছ থেকে একটি সুপার ইয়ট কেনে ৩৮ কোটি ডলার খরচ করে।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় নৌকার একটি এই ইয়টের নাম সিরিন। যার দৈর্ঘ্য হবে ৪৩৯ ফুট ৪ ইঞ্চি। আর কড়িকাঠের প্রস্থ হবে ৬০ ফুট।

গত বছর নৌকার খোলের মা’রাত্ম’ক ক্ষ’তিগ্র’স্ত হয়েছে। লোহিতসাগর দিয়ে চলাচল করার সময় জলমগ্ন চড়ায় ভাসমান পাথরে আঘা’ত লেগে এই ক্ষতি হয়েছে।

যেকোনো ধনাঢ্য ব্যক্তির মতোই শিল্পকর্ম পছন্দ করেন মোহাম্মদ বিন সালমান। কিন্তু একটি শিল্পকর্ম নিয়ে রহ’স্য তৈরি হয়েছে।

২০১৭ সালে লিওনার্দো দা ভিঞ্চির একটি বিরল শিল্পকর্ম ৩৪ কোটি ডলার খরচ করে কিনে নেন সৌদি যুবরাজ। এ পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি দামে বিক্রীত কোনো শিল্পকর্ম হচ্ছে দা ভিঞ্চির এই সালভাতোর মুন্ডি।নিলাম প্রতিষ্ঠান ক্রিস্টি এই খবর প্রত্যাখ্যান করেছে। বর্তমানে আবুধাবির ল্যুভর জাদুঘরে ওই শিল্পকর্মটি রয়েছে।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • *
  • এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আরও খবর

    kidarkar