kidarkar

যুবককে পি’টিয়ে হ’ত্যা করল পুলিশ!

বাংলাদেশ

হাসান রাফি | ২৩ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৪৭ পূর্বাহ্ন

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে মোবাইল চুরির অ’ভিযোগে এজাহার মিয়া (২৭) নামের এক যুবককে পি’টিয়ে হ’ত্যার অ’ভিযোগ উঠেছে এক পুলিশ কর্মকর্তার বি’রুদ্ধে। এ ঘটনায় অ’ভিযুক্ত পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) ও আরেকজনকে আ’টক করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে সী’তাকুণ্ডের ভা’টিয়ারী ইউনিয়নের বালুর রাস্তা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তবে নিহ’তের পরিবার ও স্থানীয় এলাকবা’সী পুলিশ কর্মকর্তাসহ হ’ত্যায় জ’ড়িতদের দৃ’ষ্টান্তমূলক শা’স্তির দা’বি জানিয়ে বিক্ষো’ভ করেছে।

গ্রে’প্তার এসআই ইকবাল পারভেজ রায়হান চট্টগ্রাম রেঞ্জ রিজার্ভ ফোর্সে দায়িত্বরত। বি’ষয়টি জানিয়েছেন চট্টগ্রাম জে’লার পুলিশ সুপার (এসপি) নুরে আলম মিনা। আ’টক আরেকজন হলেন, অ’ভিযুক্ত পুলিশ কর্মকর্তার বড় বোনের জামাতা মিজান উদ্দিন (৫০)

নিহ’ত এজাহার মিয়া ভাটিয়ারি ইউনিয়নের বালুর রাস্তা এলাকার মফিজুর রহমানের ছেলে। সীতাকুণ্ডের একটি শিপ ইয়ার্ডে দিনমজুরের কাজ করতেন তিনি।

নিহ’ত এজাহার মিয়ার শাশুড়ি মরিয়ম বেগম জানান, মোবাইল চু’রির মি’থ্যা অ’ভিযোগে সোমবার রাত সাড়ে ৯টায় এসআই রায়হান মোবাইল ফোনে এজাহারকে ডে’কে নেয়। এরপর তাকে নিয়ে নিজ বস’তবাড়ি ভাটিয়ারী কলেজপাড়ায় নিয়ে যায় রায়হান। পরে এজাহারকে রায়হান, তার বোন, শ্যালক ও তার স্ত্রী মিলে হাত-পা রশি দিয়ে বেঁ’ধে বেধ’ড়ক পি’টুনি দেয়।

মঙ্গলবার ভোররাত ৫টার দিকে একটি সাদা মাই’ক্রোবাসে এজাহারকে মু’মূর্ষু অবস্থায় ভাটিয়ারী-হাটহাজারী লিংক রোড়ে নিয়ে ব্রিজ এলাকায় একটি রিকশা করে বাড়িতে পা’ঠিয়ে দেন। তার অবস্থার অ’বনতি দেখে স্ত্রী পপি ও শাশুড়ি তাকে স্থানীয় বিএসবি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় তার মৃ’ত্যু হয়।

সীতাকুণ্ড মডেল থানার পরিদর্শক (ত’দন্ত) শামীম শেখ জানান, যুবকের লা’শ ভাটিয়ারী ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) কার্যালয়ের সামনে রেখে পরিবার ও এলাকাবা’সী বিক্ষো’ভ করে। পরে খবর পেয়ে ঘ’টনাস্থল থেকে লা’শটি উ’দ্ধার করে ম’য়নাত’দন্তের জন্য ম’র্গে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘ’টনায় জ’ড়িত থাকার অ’ভিযোগে দুজনকে আ’টক করা হয়েছে। ত’দন্তের পর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • *
  • এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আরও খবর

    kidarkar