নেই টাকার ব্যবস্থা, রিকশাচালক বাবার মেয়ে মেডিকেলে চান্স পেয়েও ভর্তি অনিশ্চিত

মেডিকেলে চান্স পেয়েও অর্থের অভাবে ভর্তি হতে পারছেন না হাজীগঞ্জের মেধাবী ছাত্রী পান্না। সে এ বছর মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় ৭৫.২৫ স্কোর পেয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন। কিন্তু তাতে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে দারিদ্রতা।

বাবা রিকশাচালক। নেই টাকার ব্যবস্থা। কীভাবে ভর্তি হবেন মেডিকেলে এ নিয়ে চিন্তায় পড়েছে পান্না। পান্না চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার বড়কুল ইউনিয়নের রায়চোঁ গ্রামের মুন্সী বাড়ির মেধাবী ছাত্রী। তার বাবা মোঃ দুলাল মিয়া। মা কোহিনূর বেগম। সে রায়চোঁ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্রী। তিন বোনের মধ্যে সবার ছোট। বাবা রিকশাচালক, মা গৃহিণী।

কিন্তু পান্নাকে ভর্তি করানো বা লেখাপড়া চালিয়ে নেওয়ার সামর্থ্য নেই পরিবারের। শুধুমাত্র টাকার অভাবে এমন একটি মেধাবী ছাত্রী মেডিকেল ভর্তি হতে পারছেন না। এমন পরিস্থিতিতে উপজেলা প্রশাসন, জেলা প্রশাসনসহ সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান স্থানীয়রা।