ছোট ছেলেকে নিয়ে ঢাকা ছাড়ার আগে যা বলে গেলেন আবরারের বাবা

: বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) নিহত ছাত্র আবরার ফাহাদের একমাত্র ছোট ভাই আবরার ফায়াজ কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে ভর্তির আবেদন করেছেন। নিরাপত্তা শঙ্কায় তিনি ঢাকা কলেজ থেকে ছাড়পত্র নিয়েছে।
আবরারের বাবা
মঙ্গলবার(১৫ অক্টোবর) দুপুরে ঢাকা কলেজ কর্তৃপক্ষ অনাপত্তি ছাড়পত্র দিয়েছেন বলে নিশ্চিত করেন ফায়াজের পিতা বরকত উল্লাহ।

কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ কাজী মনজুর কাদির জানান, গত রবিবার আবরার ফায়াজ কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে ভর্তির আবেদন করেন। আবেদনের প্রেক্ষিতে ইতিমধ্যেই কলেজ কর্তৃপক্ষ বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নিয়ে তাকে ভর্তি করে নেওয়ার জন্য ইতিবাচক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। এখন অপেক্ষায় আছি ঢাকা কলেজ থেকে ছড়পত্রের কপি হাতে পেলেই ফায়াজের ভর্তির প্রাথমিক কাজ সম্পন্ন হবে।

আবরার ফায়ারের পিতা রব কত আল্লাহ জানান, দুই ছেলের একজন আমাদের ছেড়ে চলে গেছে, এই অবস্থায় সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা জনিত অজানা শঙ্কা মাথায় নিয়ে জীবন যাপন আরও কষ্টসাধ্য হয়ে উঠেছে। এসব বিষয় ভেবে ওর মা এবং পরিবারের অন্যান্য স্বজনদের ইচ্ছায় এমন সিদ্ধান্ত নিতে হলো। এছাড়া, এক সন্তানকে হারিয়ে ফায়াজের মা রোকেয়া খাতুনের একাকিত্বও বিবেচনা করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, কুষ্টিয়া সরকারি কলেজও দেশের উল্লেখযোগ্য কলেজগুলোর মধ্যে অন্যতম। ফায়াজ ছোট, ওকে দেখেশুনে আগলে রাখার জন্য বড় ভাই ফাহাদ ছিল। যেখানে ফাহাদই যখন চরম নৃশংসতার শিকার হলো, সেখানে আর কার ভরসায় বা ওকে (ফায়াজকে) ঢাকায় রাখব? আমি বিশ্বাস করি ফায়াজ কুষ্টিয়া সরকারি কলেজ থেকেও পড়ালেখা করে ভালো রেজাল্ট করবে। সেই সঙ্গে ওর মাকেও সঙ্গ দিতে পারবে। তাতে নতুন করে ফায়াজের জন্য ওর মা কিছুটা হলেও দুশ্চিন্তামুক্ত থাকবে।