খালেদের টর্চার সেল দেখে আমি শিহরিত : লে.কর্নেল শফিউল

গতকাল বুধবার রাতে অবৈধ অস্ত্র, মাদক ও ক্যাসিনো চালানোর অভিযোগে খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে অ’স্ত্রসহ আটক করে র‍্যাব। আটকের পর তাকে র‍্যাব-৩ এর কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। রাতে গ্রে’ফতারের পর বিকেলে খালেদের টর্চারসেলে অভিযান যায় র‍্যাব-৩।

আজ বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) রাত ১২ টার পর কমলাপুর রেলস্টেশনের উল্টো দিকে ইস্টার্ন কমলাপুর টাওয়ারে এই অভিযান চালানো হয়। র‌্যাব সূত্রে জানা গেছে, টর্চার সেলে নির্যাতনের অনেক ধরনের যন্ত্রপাতি রয়েছে। কেউ চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে টর্চার সেলে নিয়ে নির্মম নি’র্যাতন চালানো হতো।

উচ্চ মাত্রায় সুদসহ পাওয়া টাকা আদায় সব ধরনের কাজে ব্যবহার করা হতো এই টর্চার সেল। র‌্যাব-৩ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল শফিউল্লাহ বুলবুল গণমাধ্যমকে বলেন, খালেদের টর্চার সেলে অভিযান চলমান রয়েছে। এখানে যা দেখছি লোম শিউরে ওঠার মতো অবস্থা।

এর আগে বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে গুলশান-২, ৫৯ নম্বর রোডের ৪ নম্বর বাসা থেকে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এই খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে অ’স্ত্র ও মাদ’কসহ গ্রে’ফতার করেছে র‍্যাব।