আকবর আলীর প্রেমের টানে বাংলাদেশে এসে আটক ভারতীয় কিশোরী

যশোর থেকে : প্রেমিক আকবর আলীর (২৭) হাত ধরে ভারত থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছিল এক কিশোরী (১৫)। যশোর পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) গতকাল বুধবার রাতে তাকে রাজবাড়ী জেলা থেকে আটক করেছে।

ওই কিশোরীর বাড়ি ভারতের পশ্চিমবঙ্গের চব্বিশ পরগনা (দক্ষিণ) জেলায়। পিবিআই যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এম কে এইচ জাহাঙ্গীর হোসেন আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

সুপার জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, গত ২৭ এপ্রিল আকবর আলীর সঙ্গে বাড়ি ছেড়ে পালায় ওই কিশোরী। এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা চব্বিশ পরগনার ফ্রেজারগঞ্জ কোস্টাল থানায় মে মাসের ১ তারিখে মামলা করেন। জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার বাংলাদেশের (একটি বেসরকারি সংস্থা) মাধ্যমে আইনি প্রক্রিয়ায় ওই কিশোরীকে উদ্ধারের দায়িত্ব পায় পিবিআই।

এরপর বুধবার রাতে পিবিআইয়ের উপপরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান ও স্নেহাশীষ দাশ অভিযান চালিয়ে রাজবাড়ীর কালুখালী থানার পারকুল গ্রামে আকবর আলীর বাবা হোসেন আলীর বাড়ি থেকে ওই কিশোরীকে উদ্ধার করেন।

পুলিশ সুপার আরও বলেন, আকবর আলী আট বছর ধরে ভারতের গুজরাট রাজ্যে পোশাক কারখানায় কাজ করতেন। চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে মোবাইল ফোনে ওই কিশোরীর সঙ্গে আকবরের পরিচয় হয়। এর সূত্র ধরে দুজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ২৫ এপ্রিল তারা একে অপরের সঙ্গে দেখা করেন। সেখানে তারা বিয়ে করে বাংলাদেশে পালিয়ে আসার সিদ্ধান্ত নেন।

এরপর ২৭ এপ্রিল দুপুরে আকবর আলীর সঙ্গে ওই কিশোরী বাড়ি ছেড়ে পালায়। তারা ভারতে একটি স্থানে বিয়ে করেন। এরপর বাংলাদেশে এসে রাজবাড়ীর কালুখালীতে তারা বসবাস করতে থাকেন। এদিকে ওই কিশোরীকে বাড়িতে রেখে আকবর আবার ভারতে কাজে গেলে ভারতীয় পুলিশ তাকে আটক করে। বর্তমানে আকবর ভারতের কারাগারে আছেন।