কোনো হেলমেটই মাথায় ঢোকে না, জরিমানা করলো না পুলিশ

ভারতের গুজরাট প্রদেশের যুবক জাকির হোসেন। ইচ্ছা থাকলেও ট্রাফিক আইন মানতে পারছেন না তিনি! কারণ জাকিরের মাথা এতটাই মোটা যে তার মাপের হেলমেট বাজারে খুঁজে পাওয়া যায় না। ভারতীয় একটি দৈনিক বলছে, গুজরাটের উদয়পুরের বাসিন্দা জাকির পেশায় ফল ব্যবসায়ী। কয়েকদিন আগে হেলমেট ছাড়া বাইক চালাতে গিয়ে ধরা পড়েন তিনি। ট্রাফিক পুলিশ নিয়ম মেনে তাকে জরিমানা করে। দেশটির নতুন মোটরযান আইন অনুযায়ী মোটা অঙ্কের জরিমানা হয় জাকিরের।

জরিমানার রসিদ হাতে পাওয়ার পর জাকির পুলিশকে জানান, তিনি চাইলেও ট্রাফিক আইন মানতে পারছেন না। কারণ তার মাথাটা এতটাই মোটা যে বাজারে কোনো হেলমেট তার মাপে পাওয়া যায়নি। জাকির বলেন, আমার কাছে সব বৈধ কাগজপত্র রয়েছে। শুধু হেলমেট নেই। আমি অনেক দোকানে গিয়েছি। কিন্তু কোথাও আমার মাপের হেলমেট পাইনি। আইন মেনে চলাটাই কাজ, সবাই সেটাই করতে চায়। কিন্তু আমার উপায় নেই। সমস্যার কথা পুলিশকেও জানিয়েছি।

জাকিরের মোটা মাথা নিয়ে উদ্বিগ্ন জাকিরের পরিবারও। সমস্যার কথা বুঝতে পেরেছেন পুলিশ কর্মকর্তাও। গুজরাট পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, এটা একেবারেই আলাদা সমস্যা। সমস্যার কথা বুঝেই জরিমানা করা হয়নি। ভারতে গত ১ সেপ্টেম্বর থেকে চালু হয়েছে নতুন মোটরযান আইন। নতুন আইন অনুযায়ী, মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালালে জরিমানা ২ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ১০ হাজার টাকা করা হয়েছে। কোনো এমার্জেন্সি গাড়িকে রাস্তা না ছাড়লে ৫ হাজার টাকা জরিমানা দিতে হবে। আগে এই জরিমানা ছিল এক হাজার টাকা।