মুসলিম পরিচয়ে স্কুলছাত্রীকে বিয়ে, অতঃপর

পিরোজপুরের এক ব্যাংক কর্মকর্তা মুসলিম পরিচয়ে প্রেমের ফাঁদে ফেলে এক স্কুল ছাত্রীকে বিয়ে করেছেন। এ ঘটনায় প্রতারক বাদল কুমার রায়কে (২৭) থানায় আটক করা হয়েছে।

আটককৃত প্রতারক বাদল জেলার সদর উপজেলার পাড়েরহাট এলাকার বাদুরা গ্রামের শিতাংশু কুমার রায়ের পুত্র। তিনি উপজেলার হুলারহাট এলাকার রূপালী ব্যাংক শাখার সিনিয়র অফিসার হিসাবে কর্মরত আছেন।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় থানা পুলিশ তাকে পৌর এলাকার ইয়াছিনের পুল থেকে আটক করেছে। স্থানীয় প্রভবাশালী একটি চক্র বিষয়টি ধামাচাপা দিতে উঠে পড়ে লেগেছে।

ওই আটক অভিযানে অংশ নেয়া থানা পুলিশের এসআই মো. আরিফুর রহমান জানান, ওই প্রতারক যুবককে স্থানীয়রা আটক করে থানা পুলিশে সোপর্দ করেন। ভুক্তভোগী স্কুল ছাত্রী উপজেলার হুলারহাট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী।

ভুক্তভোগী ওই ছাত্রী জানায়, তার সাথে গত এক বছর আগে স্থানীয় হুলারহাটের রূপালী ব্যাংকে সিনিয়র অফিসার হিসাবে কর্মরত ওই হিন্দু যুবক নিজেকে মুসলিম বলে পরিচয় দেন। তিনি নিজের নাম বাদল শেখ বলে ওই মেয়ের সঙ্গে প্রেম করেন। গত তিনদিন আগে তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।

পরে বাদল রায়ের পরিচয় জানার পর স্থানীয়রা তাকে আটক করে থানা পুলিশে সোপর্দ করেন।

এ ব্যাপারে থানা পুলিশের অফিসার ইন চার্জ মো. নুরুল ইসলাম বলেন, গ্রেপ্তারকৃত প্রতারক যুবক বাদল কুমার রায় থানা হাজতে রয়েছেন। আর ভুক্তভোগী ওই স্কুল ছাত্রীও থানায় রয়েছে। স্কুলছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দিলে মামলা নেয়া হবে।