এবারের ঈদ নাটকের আয়ে এগিয়ে নিশো-মেহজাবীন

প্রতি বছর ঈদকে কেন্দ্র করে নাট’ক নির্মাণের হিড়িক পড়ে যায়। একাধিক নির্মাতা গুটিকয়েক অ’ভিনয়শিল্পীদের নিয়ে সেসব নাট’ক নির্মাণ করেন।

গত কয়েক বছর ধরে দেশি নাট’কে ঘুরে ফিরে একই মুখ দেখা যাচ্ছে। ধরেই নেওয়া হয়, নাট’কের জনপ্রিয় মুখগুলো ঘুরে ফিরে আসে আর তাদের পকে’টেই ঢোকে ঈদের সর্বোচ্চ আয়।

তবে জনপ্রিয়তার ধরন বদলে যাচ্ছে। এই সেদিনও মোশাররফ করিম, চঞ্চল চৌধুরী, জাহিদ হাসানদের নাম প্রথম সারিতে আসলেও এখন আর তেমনটা নেই। এবারের ঈদের হিসাব সে কথাই বলছে। নাট’ক থেকে আয়ের হিসেবে মোশাররফ করিম দ্বিতীয় অবস্থানে চলে গেছেন। আয়ের খাতার হিসাব কিংবা নাট’কের কাস্টিংয়ে চঞ্চল চৌধুরী, জাহিদ হাসানরা অনেকটা পিছিয়ে পড়েছেন। একই অবস্থা নুসরাত ইম’রোজ তিশারও। তাকে পিছনে ফেলে এখন আয়ের খাতায় বড় অংক গুনছেন মেহ’জাবীন।

এবার দেখে নেওয়া যাক নাট’কের কাস্টিং ও আয়ের খতিয়ান। পুরুষ অ’ভিনয়শিল্পীদের মধ্যে আফরান নিশো সবচেয়ে এগিয়ে এবারের ঈদে। টেলিভিশন ও অনলাইন প্ল্যাটফর্ম মিলিয়ে তিনি ৩৭টি নাট’কে অ’ভিনয় করেছেন। প্রতি নাট’কে গড়ে ৬০ হাজার টাকা পারিশ্রমিক নেন তিনি। সেই হিসাবে ঈদুল আজহায় তিনি ২২ লাখ ২০ হাজার টাকা আয় করেছেন।

এক সময়ের সবচেয়ে ক্রেজ মোশাররফ করিম এবার ১৯টি নাট’কে অ’ভিনয় করেছেন। তবে এখনো পারিশ্রমিকের হিসেবে তার নাট’ক প্রতি সর্বোচ্চ দর ৮০ হাজার টাকা। যা থেকে মোট আয় হচ্ছে ১৫ লাখ ২০ হাজার টাকা।

সার্বিকভাবে তৃতীয় অবস্থানে মেহ’জাবীন। তিনি সর্বোচ্চ ২৪টি নাট’কে অ’ভিনয় করে নাট’কপ্রতি ৫০ হাজার টাকা পারিশ্রমিক দরে আয় করেছেন ১২ লাখ টাকা।

নাট’কের হিসেবে দ্বিতীয়, আয়ের হিসাবে চতুর্থ তৌসিফ মাহবুব। তিনি অ’ভিনয় করেছেন ৩৪টি নাট’কে। নিয়েছেন ৩৫ হাজার টাকা করে পারিশ্রমিক। তাতে তার মোট আয় দাঁড়াচ্ছে ১১ লাখ ৯০ হাজার টাকা। নারীদের মধ্যে ২৩টি নাট’ক করে ৩৫ হাজার টাকা পারিশ্রমিক দরে তানজিন তিশা আয় করেছেন ৮ লাখ ৫ হাজার টাকা।

দর্শক চাহিদার কারণে নির্মাতারা এসব অ’ভিনয়শিল্পীদের নিয়ে বাধ্য হয়ে নাট’ক নির্মাণ করেন। এছাড়া চ্যানেলগুলোর আগ্রহও আছে তাদের প্রতি। এদিকে চঞ্চল চৌধুরী, অ’পূর্ব, তাহসান এবং নারী অ’ভিনয়শিল্পীদের মধ্যে তানজিন তিশা, নুসরাত ইম’রোজ তিশাও ছিলেন এবারের তালিকায়। তবে শীর্ষ তালিকায় তারা একটু পিছিয়েই রয়েছেন।

নাট’কের পরিচালকদের সঙ্গে কথা বলে পারিশ্রমিক ও নাট’ক সংখ্যার তথ্য পেয়েছে সারাবাংলা। তবে সারাবাংলার সঙ্গে আলাপকালে একাধিক অ’ভিনেতা–অ’ভিনেত্রী বলেছেন, তাদের পারিশ্রমিকের কোনো সুনির্দিষ্ট অংক থাকে না। স’ম্পর্কের খাতিরে কখনো কখনো তারা পারিশ্রমিক কিছুটা কম নেন। আবার অনেকে ঈদ উপলক্ষে পারিশ্রমিক কিছুটা বাড়িয়েও দেন।

সুত্র: সারাবাংলা.নেট।