শাবনূরের ‘জমজমাট’ ঈদ

শাবনূর। একটি মাত্র নামেই যেন অনেক কিছু। কে না চেনেন? নব্বইয়ের দশকে চিত্রনায়িকা হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু। অভিনয় করেছেন অসংখ্য ব্যবসা সফল ছবিতে। সেই সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় নায়িকা হিসেবে বিবেচনা করা হয় তাকে। কিন্তু এই সময় এসে চলচ্চিত্র থেকে অনেকটাই নির্বাসনে আছেন বলা চলে। রুপালি পর্দায় অনিয়মিত হয়ে পড়েছেন অনেক দিন হলো। বছরের বেশিরভাগ সময় থাকেন অস্ট্রেলিয়ায়। সেখানকার নাগরিকত্বও পেয়েছেন।

দেশের এক সময়ের সেনসেশন ও হার্টথ্রব নায়িকা এবার ঈদুল আজহা পালন করেছেন অস্ট্রেলিয়ায়। ধর্মীয় রীতি মেনে সেখানে কোরবানিও করেছেন। ঢাকাটাইমসকে জানিয়েছেন, একটি গরু ও খাসি কোরবানি করেছেন ঈদে। তবে অস্ট্রেলিয়ায় কোরবানি দেয়ার অভিজ্ঞতা তার কাছে একটু অন্যরকম-এমনটাই জানালেন সাবেক এই ঢালিউড কুইন।

বিদেশ বিভূঁইয়ের ঈদ কেমন কাটালেন এমন প্রশ্নে শাবনূর বলেন, ‘এখানকার ঈদ জমজমাট। আমরা ঈদে অনেক মজা করেছি। পরিবারের সঙ্গে সময় কাটিয়েছি। তবে দেশের আনন্দতো আর এখানে পাওয়া যাবে না। তবে এক কথায় এটা আমার জন্য ছিল জমজমাট। সবাই মিলে সারাক্ষণ হৈ-হুল্লোড় করে কাটিয়েছি।’

তারকা হিসেবে বিড়ম্ভনায় পড়তে হয় কি না এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘তারকা হিসেবে এক ধরনের বাড়তি চাপতো থাকেই। তবে সেটা দেশের মতো না। দেশের তুলনায় নাই বললেই চলে।’

‘তবে দেশের প্রিয়জনদের অনেক বেশি মিস করছি এবারে ঈদে। তাদের জন্য খারাপও লাগছে। সেটাতো চাইলে এখানে পাওয়া সম্ভব না। তাদের জন্য আমার ভালোবাসা আর ঈদের শুভেচ্ছাতো আছেই।’

ঈদের পরে দেশে ঘুরতে আসবেন বলেও জানান সাবেক এই লাস্যময়ী তারকা।

চলচ্চিত্রে ফিরতে চান কি না জানতে চাইলে শাবনূর বলেন, ‘সবকিছুরই একটা বয়স থাকে। আমার আর সেই বয়সটা নেই। যা আমি হারিয়েছি। ফিটনেসও নেই। ফিরতে হলেতো ফিটনেস ঠিক করতে হবে। এখন ফিটনেস নিয়ে কাজ করে ফেরার মতো সুযোগ নেই। আসলে এখন আর ফিরছি না।’

ভবিষ্যতে ফিরবেন কি না এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘ভবিষ্যতের কথা কে বলতে পারে বলুন? সেটা ভবিষ্যতের বিষয়টা আমি নিজেও জানি না।’